দু'কামরার ফ্ল্যাটে থাকেন রতন টাটার ভাই! লাইমলাইট থেকে বহু দূরে অবস্থান জিমির

‘টাটা’ নামটি এদেশের বাণিজ্যের সঙ্গে ওতোপ্রোতভাবে জড়িত। হেভি ইন্ডাস্ট্রি থেকে শুরু করে দৈনন্দিন জীবনের নানা জিনিসপত্রে মানুষের অজান্তেই জড়িয়ে রয়েছে এই নামটি। কিছু নজরে আসে। কিছু চট করে আসে না। সেখানে আলো পড়ে কখনও সখনও। লাইমলাইটের বাইরের মঞ্চ থেকে যায় বরাবরই দৃষ্টির আওতার বাইরে। টাটাভাইদের মধ্যে যাঁর খবর সবার আগে পাওয়া যায়, বা বলা যায় খবর যিনি তৈরি করেন, তিনি রতন টাটা। তবে তাঁর ছোটভাই জিমি টাটার সঙ্গে মানুষ কতটা পরিচিত? বলা শক্ত।

কয়েকদিন আগে হর্ষ গোয়েঙ্কার একটি ট্যুইট ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ট্যুইটে গোয়েঙ্কা বলেছেন, “আপনারা কি জানেন, রতন টাটার ছোট ভাই জিমি টাটা মুম্বইয়ের কোলাবায় একটি দুকামরার ফ্ল্যাটে থাকেন! অত্যন্ত ছিমছাম তাঁর জীবন! ব্যবসায় মতি ছিল না কোনওদিনই, স্কোয়াশটা খেলেন কিন্তু জব্বর। আমায় প্রতিবার হারিয়ে দিয়ে যান।”

 

এরপরই নানা মত ছড়িয়ে পড়তে থাকে নেট দুনিয়ায়। এত ছিমছাম সাধারণ জীবন যাপনের জন্য বহুলোকেই তাঁকে সাধুবাদ জানান। আবার অনেকের মতে, এটা তাঁর চয়েস। টাকার তো আর কমতি নেই। তবু এইভাবে থাকাই পছন্দ করেন তিনি। কম খরচে জীবন কাটানো বেছে নেওয়া আর দারিদ্রের মধ্যে ফারাক রয়েছে আকাশ পাতাল। এরকমভাবেই নানা মুনির নানা মত নানা আলোচনায় উত্তাল ফেসবুক ট্যুইটার।

প্রসঙ্গত জিমি, নওল টাটা ও তাঁর প্রথম স্ত্রী সুনির পুত্র। এই নওল টাটা ছিলেন নওয়াজ ভাই টাটার দত্তক নেওয়া পুত্র। নওল টাটার জন্মদাত্রী মা জামশেদজী টাটার স্ত্রী হীরাবাঈ টাটার বোন। রতন টাটা জিমির বড় ভাই, কিন্তু পরে  তাঁকে  দত্তক নেন জাহাঙ্গীর রতনজি দাদাভাই টাটা। টাটা সন্স এবং অন্যান্য টাটা কোম্পানির শেয়ার হোল্ডার জিমি। যদিও ব্যবসায় নামতে চাননি কখনওই। সাধারণ জীবন যাপন করতে ভালোবাসেন। এমনকি কোনও মোবাইল ফোন পর্যন্ত নেই তাঁর। শুধু খবরের কাগজের মধ্যে দিয়েই বাইরের জগতের নানা তথ্য পৌঁছায় তাঁর কাছে। তবে টাটা গ্রুপের খুঁটিনাটির খবর রয়েছে জিমির সংগ্রহে। হ্যাম্পটন কোর্টের সাত তলায় দু'কামরার ফ্ল্যাট জিমির। ঘরের এক কোনায় একটি টিভি রয়েছে। ফাইল এবং সুটকেসে ঘরের দেয়াল ঢেকে ফেলেছে প্রায়। এই হচ্ছে তাঁর ঘরের চিত্র। আশেপাশের লোকজনের বক্তব্য, এই ব্যাচেলর ভদ্রলোকটি ঘর থেকে বেরোনই না প্রায়। কেউ দরজায় নক করলেও দরজা খোলার ব্যাপারে জিমি অত্যন্ত সাবধান। বর্তমানে তাঁর বয়স ৮১। টাটা মোটরস, টিসিএস, টাটা স্টিল, টিসিএস-এর মতো সংস্থায় কিছু শেয়ার রয়েছে জিমির নামে। কিন্তু বিতর্ক থেকে তিনি শতহস্ত দূরে। এমনকী সাইরাস মিস্ত্রি বিতর্কের সময়েও তিনি কোনও বৈঠকে অংশ নেননি। কেউ জীবন সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে ফাইল ধরিয়ে দেন জিমি। ফাইলে সযত্নে রাখা আছে টাটা গ্রুপের পেপার কাটিং-সহ বিবিধবৃত্তান্ত, মন্তব্য সমেত সেগুলিকে সংরক্ষণ করছেন তিনি।

হর্ষের ট্যুইটের উত্তরে উঠে এসেছে নানা ধরনের রিট্যুইট। কেউ বলছেন, কীসে এমন পার্থক্য হয়? এক ভাই কিংবদন্তি ব্যবসায়ী, অন্য ভাই ব্যবসা ছুঁয়েও দেখলেন না কখনও। কেউ উত্তর করেছেন, জে আর ডি, অর্থাৎ জাহাঙ্গীর রতনজি দাদাভাই টাটার মতো নামজাদা মানুষ যাঁকে দত্তক নেন, তাঁর শুরুটা যে আর চারপাঁচ জনের থেকে আলাদা হবে–এতে আর সন্দেহ কী? দুইভাই দু'রকম জে আর ডির জন্যই। আবার কেউ হর্ষ গোয়েঙ্কাকে ধন্যবাদ জানিয়ে স্বীকার করেছেন জিমি টাটার কথা আমরা জানতাম না। প্রতিটি মানুষের নিয়তি আলাদা আলাদা। সত্যিই তো, লাইম লাইটের বাইরে থাকা এই অতি সাধারণ যাপনে অভ্যস্ত মানুষটাকে আমরা কজনই বা খেয়াল করেছি!

 

তথ্যঋণ–

 

Raghav, Punit. 2022. “Ratan Tata’s Younger Brother Jimmy Tata Lives in a Two Bedroom Flat and Does Not Have a Mobile Phone. Ratan Tata’s Younger Brother Jimmy Tata Lives in a Flat in Mumbai.” The Google (blog). January 22, 2022.

“Ratan Tata Brother: Ratan Tata’s Brother Jimmy Tata Lives in a 2-Room Flat, Doesn’t Even Have a Mobile Phone | | Know about Brother of Ratan Tata Jimmy Tata Living Simple Life in Mumbai.” n.d. 

“Ratan Tata’s Brother Jimmy Lives in a Simple 2BHK in Mumbai, Tweets Harsh Goenka - Nation.” n.d. 

“Ratan Tata’s Brother Jimmy Tata ‘Lives In A Humble 2 Bhk’: Harsh Goenka.” n.d. Moneycontrol. 

“Tata Family.” 2021. In Wikipedia.

The Times of India. 2016. “Jimmy Naval Tata, the Brother, a Tata Trustee, Who Lives in the Shadows,” December 21, 2016.

“Who Is Jimmy Tata? Meet the Low Profile Brother of Ratan Tata.” n.d.

More Articles

;