বিশ্বে মাত্র ১৫টি আছে! প্রধানমন্ত্রীর এই নতুন গাড়ি সর্বংসহা, কেন এই বাহন বাছলেন মোদী

By: Amit Pratihar

December 29, 2021

Share

প্রধানমন্ত্রীর নতুন গাড়ি নিয়ে প্রবল কথাবার্তা সব মহলে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্য আনানো হলো মার্সিডিজের দুটি নতুন গাড়ি। এতদিন ধরে তিনি রেঞ্জ রোভার এবং টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজারের গাড়িই ব্যবহার করতেন। এবার তিনি যে গাড়িতে চড়ছেন তার মডেলের নাম মার্সিডিজের এস ৬৫০।  কেন গাড়ি বদলে ফেললেন প্রধানমন্ত্রী, অনেকেই বলছেন, এটি এই মুহূর্তে পৃথিবীর সবথেকে বেশি নিরাপত্তাপ্রদানকারী গাড়ি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই খোঁজ শুরু হয়ে গিয়েছে কেমন এই গাড়ি। একপ্রস্থ বুঝে নেওয়া যাক এই গাড়িটির সাত সতেরো।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মার্সিডিজ এস ৬৫০ গাড়িটিতে আছে VR10 লেবেলের নিরাপত্তা গার্ড যা এইমুহূর্তে বিশ্বের সব থেকে উচ্চতর নিরাপত্তা প্রদানকারী গার্ড। এই গার্ড ব্যবহার করা হয় গাড়ির কাঁচে এবং গাড়ির বডিতে। মনে নিশ্চয়ই প্রশ্ন জাগছে যে কী কাজ এই গার্ডের? কনভয়ের ওপর হঠাৎ আক্রমণ হলে, এই গার্ড গাড়ির দিকে ধেয়ে আসা বুলেটের থেকে রক্ষা করে গাড়ির ভিতরের যাত্রীকে। শুধু বুলেট নয়, VR10 গার্ড AK47 থেকে ধেয়ে আসা অটোমেটিক বুলেটের সামনেও এই গার্ড থাকলে নিশ্চিন্ত । অর্থাৎ এই গাড়িকে চারদিক দিয়ে ঘিরে এক-৪৭ এর কয়েকটা ম্যাগাজিন গাড়ির ভিতরের যাত্রীর দিকে তাক করে খালি করে দিলেও কোনও লাভ নেই। যাত্রী এবং গাড়ির কোনও ক্ষতি সাধন হবে না। এই গাড়ির কাঁচ প্রায় ১০ সেন্টিমিটার বা ৪ ইঞ্চি পুরু যা তৈরি পলিকার্বনেট দিয়ে। 

এছাড়াও এই গাড়িটি ২ মিটার দূরত্ব থেকে ৫ কেজি পর্য্যন্ত TNT বিস্ফোরকের বিস্ফোরণ সামলে নিতে পারে অনায়াসে। এই গাড়ির নীচের দিকের কাঠামোও এতটাই শক্তিশালী যে গাড়ির নীচে কোনও বিস্ফোরণ হলেও গাড়িটি অনায়াসে সহ্য করে নিতে পারে।

গাড়িটির ভিতরে রয়েছে একটি অক্সিজেন ট্যাঙ্ক যা যে কোনও রকম গ্যাস হামলার হাত থেকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে ভিতরের যাত্রীদের। এই অক্সিজেন ট্যাঙ্কটির শরীর এমনই ধাতব প্রলেপ দিয়ে তৈরি যার গায়ে বুলেট দ্বারা ছিদ্র করা হলেও ধাতব প্রলেপটি সেই ছিদ্র নিজে নিজেই বুজিয়ে দেয় সেকেন্ডে।

আরও পড়ুন-‘সা রে গা মা পা ধা নি, বোম ফেলেছে জাপানি’, কী ঘটেছিল ৭৮ বছর আগের সেই দিনটায়

এখানেই শেষ নয়, এই গাড়িটির চাকা এমনভাবেই তৈরি যে পাংচার হয়ে গেলেও গাড়িটি অনায়াসে ৩০ কিলোমিটার পর্য্যন্ত চলতে পারে পাংচার হওয়া চাকা সমেত।

 এই বিশেষ গাড়িটি ৬ লিটার টুইন টার্বো ভি-১২ ইঞ্জিন দ্বারা সমৃদ্ধ যা ৫১৬ BHP এবং ১০০০ NM টর্কের জন্ম দিতে পারে। গাড়িটির সর্বোচ্চ RPM ৫৩০০ এবং গাড়িটির ওজন প্রায় ২৩৬০ কেজি। গাড়িটিতে প্রায় ৮০ লিটার তেল ধরে। গাড়িটির সর্বোচ্চ গতিবেগ ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টা যা অন্যান্য গাড়ির থেকে অনেকটা কম। কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে যেহেতু গাড়িটির ওজন অন্যান্য গাড়ির তুলনায় অনেকটা বেশি তাই সর্বোচ্চ গতিবেগ অন্যান্য গাড়ির থেকে কম। গাড়িটির ভিতরে সর্বোচ্চ ৪ জন যাত্রী বসতে পারেন। 

গোটা পৃথিবীতে মার্সিডিজ এস-৬৫০ এর সংখ্যা মাত্র ১৫টি। এই বিরলতম গাড়িটি বাজারে বা শো-রুমে কিনতে পাওয়া যায় না। সাধারণ মানুষের জন্য এই গাড়ির ব্যবহার নিষিদ্ধ। অর্ডার দিয়ে বানানো ২ খানা গাড়ির ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে যাওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালেই। কিন্তু অতিমারীর কারণে এই কালবিলম্ব। বর্তমানে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও এই সিরিজের গাড়িটি আছে ভারতবর্ষের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দের কাছে। 

More Articles