গরমে কোন পানীয় শরীর সুস্থ রাখবে? জেনে নিন

শেষ কয়েকদিনে কলকাতা-সহ পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন রাজ্যগুলিতে যে হারে তাপমাত্রা বেড়েছে, তাতে নাজেহাল সাধারণ মানুষ। তাপমাত্রার দোসর হয়েছে আর্দ্রতা। ফলে প্রচণ্ড ঘামে অস্বস্তি বেড়েছে মাত্রাতিরিক্ত। গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অনেকেই।রবিবার ডিহাইড্রেশনের কারণে মৃত্যু হয়েছে তপসিয়ার ১৮ বছর বয়সি এক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থী তরুণীর। এসময় সামান্য সচেতন হলেই শরীর সুস্থ রাখা সম্ভব। তাই কোনওভাবেই অবহেলা করবেন না স্বাস্থ্যকে।

চিকিৎসকদের মতে, তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে শরীরে প্রয়োজনীয় জলের চাহিদা পূরণ হচ্ছে না। সেই কারণেই মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। গরমের সঙ্গে যুঝতে অবশ্যই বেশি করে জল খান। জল শরীরকে হাইড্রেটেড রাখবে, ফলে সুস্থ থাকবে শরীর।একজন সুস্থ ব্যক্তির প্রতিদিন কমপক্ষে ৮ গ্লাস জল খাওয়া উচিত। তীব্র গরমের সময় ১২ গ্লাস জল প্রয়োজন। সঙ্গে ঘন ঘন জল খেতে হবে। তবে শুধু জল নয়, শরীরকে চাঙ্গা রাখতে দরকার পুষ্টি উপাদান ও সোডিয়ামেরও। তাই বেছে নিতে পারেন কিছু পানীয় যা শরীর সুস্থ রাখবে। সান স্ট্রোক ও ডিহাইড্রেশন রুখতে আজ থেকেই খেতে পারেন কিছু পানীয়।

১. ছাতুর সরবৎ
শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তির জোগান দিতে ছাতুর জুড়ি মেলা ভার। ছাতুর সরবৎ প্রোটিন, ফাইবার-সমৃদ্ধ এবং প্রাকৃতিক উপায়ে শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এই পানীয় দুর্দান্ত একটি বিকল্প। ওয়ার্কআউটের পরে এই সরবৎ খেলে অল্প সময়েই শক্তি ফেরত পাবেন। এছাড়া ছাতু অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভর্তিও রাখে।

আরও পড়ুন: ভয়ংকর তাপপ্রবাহ বাংলাজুড়ে, আশঙ্কায় বিশেষজ্ঞরা, কীভাবে বাঁচবেন?

২. লেবুর সরবৎ
শিকাঞ্জি নামেও পরিচিত সুস্বাদু এই পানীয় গরমকালে শরীর ঠান্ডা রাখে। ভিটামিন সি সমৃদ্ধ এই সরবৎ শরীরের অস্বস্তি কম করবে এবং সান স্ট্রোক থেকেও আপনাকে বাঁচাবে।

৩. বেলের সরবৎ
গরমকালে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় যোগ করতে পারেন মিষ্টি এই পানীয়টি। ভিটামিনসম্পন্ন বেলের সরবৎ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রূপে কাজ করে। শরীরের অস্বস্তি কমাতেও সাহায্য করে। ওজন কমাতেও সাহায্য করে এই পানীয়। এছাড়া পেটের সমস্যা দূর করে, হাত ও পায়ের দুর্বলতা কমায় এবং চুল ওঠার সমস্যাও দূর করে এই পানীয়।

৪. শসার রস
শসার রস ভিটামিন, খনিজ এবং ফাইবারের মতো পুষ্টি উপাদানে ভরপুর। এটি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রূপেও কাজ করে। শরীরে জলের চাহিদা পূরণেও সক্ষম এই পানীয়। পাশপাশি ওজন কমাতেও সহায়তা করে শসার রস।

৫. ডাবের জল
ডাবের জল ডিহাইড্রেশন, ক্লান্তি এবং মানসিক চাপ প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। অ্যাসিডিটির সমস্যাযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য এটি সেরা বিকল্প। উজ্জ্বল ত্বকের জন্যও ভালো এই পানীয়।

৬. দইয়ের ঘোল
গরমের সময় দইয়ের ঘোল বাঙালির প্রিয় খাবারগুলির মধ্যে অন্যতম। টক দই, লবণ, জল এবং মশলা ব্যবহার করে তৈরি করা হয় এই পানীয়। স্বাদের সঙ্গে এর গুণও রয়েছে যথেষ্ট। ডিহাইড্রেশন রুখতে এবং হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে এই পানীয়।

৭. শসা-পুদিনার রস
শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে টাটকা শসা এবং পুদিনার রস গরমের নির্ভরযোগ্য সঙ্গী। পুদিনা শরীরকে ঠান্ডা রাখে এবং  টক্সিন-মুক্ত করে। শসা পটাশিয়ামের উৎস হওয়ায় রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও কার্যকর হয়।

৮. আমপানা সরবৎ
গরমকালে আম বাঙালির সবচেয়ে প্রিয় ফল। কাঁচা আমের সরবৎ শরীরকে সতেজ রাখতেও সাহায্য করে। আম, পুদিনা পাতা ও জিরা দিয়ে তৈরি এই সুস্বাদু পানীয় গরমে আপনাকে এনার্জি দেবে।

৯. তরমুজের সরবৎ  
শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে গরমকাল তরমুজ খাওয়ার কথা বলেন চিকিৎসকরা। তরমুজের সরবতে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান রয়েছে। এছাড়াও তরমুজ ভিটামিন সি এবং এ-র উৎস ফলে নিশ্চিন্তে খান তরমুজের সরবৎ।

১০. আখের রস
আখের রসে অত্যধিক মাত্রায় সুগার থাকার তা শরীরকে শক্তি সরবরাহ করে।তাই গরমকালে ক্লান্তি কাটাতে এই পানীয় অনেকেই বেছে নেন।

More Articles

;