হেলিকপ্টার চড়েই ঘুরে দেখতে পারেন ভারতের এই শহরগুলি

ভোর হতেই শহরের এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলেছে মানুষ। বেলা গড়িয়ে সন্ধে হতেই শহরের সর্বত্র ঘরে ফেরার তাড়া। কিন্তু রাস্তায় দীর্ঘক্ষণ জ্যামে আটকে জীবন নাজেহাল। ভারতে বহু শহরের চিত্রটাই এমন। কাজেই ঘুরে দেখার কথা উঠলে গায়ে জ্বর আসে। তখন মনে হয় এর চেয়ে নিরিবিলি পরিবেশে কটা দিন কাটাতে পারলেই ভালো। কিন্তু যদি পাখির চোখ থেকে অজানা অচেনা এক ব্যস্ত শহরকে চিনে নেওয়া যেত, তবে মন্দ হতো না!  পর্যটক টানতে ভারতের বেশ কিছু শহরে চালুও রয়েছে হেলিকপ্টার পরিষেবা। অল্প সময়েই ঘুরে ফেলতে পারবেন গোটা শহরটা। একই সঙ্গে চেনা ছকের বাইরে অন্বেষণ করতে পারবেন নতুন শহরকে। তাই ধীরে ধীরে মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এই ব্যবস্থা। এমন সুযোগ হাতছাড়া না করাই ভালো।  চলুন আজ খোঁজ নিয়ে দেখা যাক ভারতের কোন শহরগুলিতে এই কপ্টার রাইডের ব্যবস্থা রয়েছে --

বিশাখাপত্তনম 

ভারতের পূর্ব উপকূলে অবস্থিত এই বন্দর শহরটি সমুদ্র সৈকতের জন্য বিখ্যাত। ওপর থেকে দেখলে এক অদ্ভুত মনোরম দৃশ্য নজরে পড়বে পর্যটকদের। বিশাখাপত্তনম হেলিকপ্টার চার্টার সার্ভিসের থেকে নিজের পছন্দমত হেলিকপ্টার বুক করে বেরিয়ে পড়ুন শহর দেখতে। এক্ষেত্রে অল্প সময়ের জন্য কৈলাসগিরি ভ্রমণের প্যাকেজ অথবা বেশি সময় নিয়ে আরাকু ভ্যালি ঘুরে দেখার প্যাকেজ বেছে নিতে পারেন।

গোয়া 

ভালোবাসার মানুষকে সঙ্গে নিয়ে হারিয়ে যেতে বা বন্ধুদের নিয়ে পার্টিতে মজে উঠতে অনেকেরই প্রথম পছন্দের জায়গা গোয়া। কিন্তু এই শহর হেলিকপ্টারে করে ঘোরার ব্যবস্থা আছে নাকি? হ্যাঁ আছে। বাতাসে ভেসে দেখে ফেলুন শহরের গির্জা, সমুদ্রতট, মন্দির, দুর্গ এবং মশলা বাগানের সৌন্দর্য।পর্যটকদের কাছে যা ছবির থেকেও বেশি সুন্দর। গোয়া ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন ও পাওয়ান হানসের সহযোগিতায় পার্ক হায়াত হোটেলের হেলিপ্যাড থেকে শহর ভ্রমণে বেরিয়ে পড়ুন কাছের মানুষদের সাথে। 

জয়পুর 

আরাবল্লি পর্বতে ঘেরা থর মরুভূমির প্রান্ত দেশে অবস্থিত গোলাপি শহর জয়পুর। নতুনভাবে এই শহরকে জানতে হেলিকপ্টার রাইডের ব্যবস্থা করে ফেলুন আজই।' হেরিটেজ অন এয়ার' নামক সংস্থার বিমানে ঘুরে দেখুন শহরের জন্তর মন্তর, হাওয়া মহল, দুর্গ ও বিভিন্ন মন্দির। সংশ্লিষ্ট সংস্থার একাধিক প্যাকেজের পাশপাশি পর্যটকরা নিজের পছন্দমতো ট্যুর প্যাকেজ সাজাতে পারেন। 

 

 সিকিম

পাখির চোখ মনোরম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের পাশাপাশি বরফে ঢাকা পাহাড় দেখতে মন চাইলে সিকিম আদর্শ ঠিকানা। গাড়ি করে সিকিম ঘুরলে হাতে গোনা কিছু ট্যুরিস্ট স্পটই দেখার সুযোগ রয়েছে।তবে শীতকালে তো এগোতেই পারবেন না গাড়ি নিয়ে।

আরও পড়ুন-কালনার লালজি মন্দিরের ইতিহাসের সঙ্গে জড়িয়ে এক নাগা সাধুর মাহাত্ম্য!

বরফের চাদরে ঢাকা এই শহরকে দেখার জন্য হেলিকপ্টারে বেরিয়ে পড়তে পারেন। ওপর থেকে তুষার ঢাকা পাহাড়ের শৃঙ্গ, উপত্যকার সৌন্দর্য পর্যটকদের মন কাড়তে বাধ্য। সিকিম ট্যুরিজমের থেকে নিজের বাজেট অনুযায়ী প্যাকেজ বেছে নিন। পিলগ্রিমেজ ফ্লাইট, জয় রাইড গ্যাংটক এরিয়াল ভিউ, কাঞ্চনজঙ্ঘা মাউন্টেন ফ্লাইট চার্টার্ড বা সোমগে এরিয়াল ফ্লাইট - এর মধ্যে সাধ্যমতো যে কোনো একটি প্যাকেজ বুক করে চটজলদি ঘুরে ফেলুন সিকিম। 

 

উদয়পুর 

আরাবল্লি পর্বতের মধ্যভাগে অবস্থিত সুন্দর পরিবেশে ঘেরা 'হ্রদের শহর' উদয়পুর। প্রাসাদ, সবুজ পাহাড় এবং জলাশয় নিয়ে গড়ে ওঠা এই শহরের রোম্যান্টিক পরিবেশের টানে বারবার ফিরে আসেন পর্যটকরা। হেলিকপ্টারে চেপে এই শহরের সৌন্দর্য উপভোগ করার অভিজ্ঞতা জীবনে দেখা সেরা দৃশ্যগুলির অন্যতম। মেওয়ার হেলিকপ্টার সার্ভিস রাইডসের একাধিক ট্যুর প্যাকেজ রয়েছে যা থেকে পর্যটকরা নিজের পছন্দমত প্যাকেজ বেছে নিতে পারেন। এগুলির মধ্যে অন্যতম সিনিক উদয়পুর ট্যুর,এয়ার অ্যাডভেঞ্চার ট্যুর, উদয়পুর লেক ট্যুর এবং সিনিক আরাবল্লি ট্যুর। 

মুম্বই 

আরব সাগরের তীরে অবস্থিত স্বপ্নের নগরী মুম্বইয়ের সৌন্দর্য  পরখ করার অন্যতম সেরা মাধ্যম হেলিকপ্টার। ৭০০ ফুট উচ্চতা থেকে এই শহরের স্কাইলাইন উপভোগ করার আকর্ষণীয় সুযোগ হাতছাড়া করবেন না। জুহু সমুদ্র সৈকত, ওরলি সি লিঙ্ক, হাজি আলি,এসেল ওয়ার্ল্ড, অ্যানটেলিয়া ইত্যাদি একাধিক জায়গা ঘুরে দেখার সুযোগ রয়েছে। পবন হানস সহ অন্যান্য অ্যাভিয়েশন কোম্পানির পছন্দসই হেলিকপ্টারে চেপে নিজের কাছের মানুষের সাথে দেখুন শহরের প্যানোরামিক ভিউ। শুধু তাই নয়, প্রিওয়েডিং শ্যুট করতে চাইলে,  ভালোবাসার মানুষটিকে রোমান্টিক কায়দায় প্রেম নিবেদন করতেও বুকিং করতে পারেন এই হেলিকপ্টার। 

হায়দরাবাদ

বিস্ময়কর স্থাপত্য এবং ঐতিহাসিক স্থান সমৃদ্ধ হায়দ্রাবাদ শহর হেলিকপ্টারে ভ্রমণের অন্যতম আদর্শ জায়গা। অন্যভাবে নিজামের শহরকে চিনতে হলে এর বিকল্প মেলা ভার। বেগমপেট এয়ারপোর্ট থেকে বেশকিছু অ্যাভিয়েশন কোম্পানির হেলিকপ্টার পরিষেবা চালু রয়েছে। স্থানীয় বাজার সহ হুসেন শাহ বাগান, চার মিনার, বিড়লা মন্দির, গোলকোন্ডা ফোর্ট, নেকলেস রোড, সেট্রাল লাইব্রেরী এমন নানা ঐতিহাসিক স্থান ঘুরে ফেলুন অল্প সময়ের মধ্যেই। 

পুনে

উঁচু থেকে বাতাসে ভাসমান অবস্থায় পুনের মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতে চাইলে হেলি রাইড করতেই হবে। ১০০০ ফুট উচ্চতায় রোমাঞ্চকর এই আনন্দের অনুভূতি পর্যটকদের আকর্ষণ করতে বাধ্য। পুনে বিমানবন্দর থেকে রবিনসন - ৬৬ উড়ানে চেপে শহরের একাধিক জায়গার সাথেই আরব সাগরের সৌন্দর্য পর্যটকদের চোখে ধাঁধা ধরাতে বাধ্য।

 

More Articles

;