ঘরে আয়নার অবস্থান বদলে দিতে পারে আপনার ভাগ্য, জেনে নিন কী ভাবে?

প্রত্যেক বাড়িতেই ছোট  বা বড় মাপের আয়না থাকেই। ঘর সাজানোর অন্যতম উপাদান আয়না কিন্তু বাস্তু শাস্ত্র মতেও  যথেষ্ট  গুরুত্বপূর্ণ। বাস্তু শাস্ত্র অনুযায়ী, আয়না বাড়িতে পজিটিভ শক্তির সঞ্চার করে। ঘরে আয়নার অবস্থান সঠিক না হলে শরীর খারাপ, দাম্পত্য কলহ , অর্থ ক্ষতির মত নানা বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে জীবনে। তাই ঘরে আয়নার অবস্থান নির্ধারণ করার সময় সতর্ক থাকুন। আয়না লাগানোর সময় যে বিষয়গুলি লক্ষ্য রাখা উচিত সেগুলি হল-

 ১। বাস্তু মতে, ভাঙা কাচ বাড়িতে রাখতে নেই কারণ তা বাড়ির সদস্যদের ওপর দীর্ঘস্থায়ী অশুভ প্রভাব ফেলে। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভাঙা আয়না বা কাঁচের টুকরো বাড়ি থেকে সরিয়ে ফেলুন।এমনকি বাড়ির চৌহদ্দির মধ্যেও ভাঙা কাচ রাখবেন না। ভুলেও ভাঙা আয়নায় নিজের প্রতিবিম্ব দেখবেন না এতে সংসারে কুপ্রভাব পড়ে।

২। বাস্তু শাস্ত্র অনুসারে, বেডরুমে আয়না না রাখাই ভালো। তবে যদি লাগাতেই হয় সেক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যেন ঘুমানোর সময় শরীরের কোনো অংশ আয়নায় না দেখা যায়। এতে শরীর খারাপের সম্ভাবনা বেড়ে যায় এবং দাম্পত্য জীবনেও অশুভ প্রভাব পড়ে। আয়না ব্যবহার না করলে বা রাতের দিকে অবশ্যই কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন।

৩। উত্তর দিকে ধনদেবতা কুবেরের অবস্থান। তাই বাস্তু শাস্ত্র মতে উত্তর দিক অর্থলাভের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আবার বাস্তু শাস্ত্র মতে, উত্তর- পূর্ব কোণে বা ঈশান কোণে দেবতাদের অবস্থান। তাই ঘরের উত্তর, পূর্ব বা ঈশান কোণে আয়না লাগলে খুব শুভ ফল পাওয়া যায়। এতে বাড়িতে ইতিবাচক শক্তি বজায় থাকে এবং পরিবারের সদস্যদের মান - সম্মান ও  খ্যাতি বৃদ্ধি পায়। তবে বাড়ির দক্ষিণ বা পশ্চিম দিকে আয়না লাগানো ঠিক নয়। এর ফলে পরিবারে কলহ বৃদ্ধি পায়।

আরও পড়ুন-ঝুঁকি নেই, সুদের হার সবচেয়ে বেশি, রইল PPF-এ বিনিয়োগের খুঁটিনাটি

৪। বাস্তু শাস্ত্রে অভিজ্ঞদের মতে, খাবার টেবিলের সামনে বড় মাপের আয়না রাখতে পারেন এতে বাড়িতে কখনও অন্নের অভাব হবে না। আবার লকারের সামনেও আয়না রাখতে পারেন, এতে শ্রীবৃদ্ধি ঘটে।

৫। আজকাল অনেক বাড়িতেই বাথরুমে আয়না লাগানো হয়। তবে এক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখবেন বাথরুমের আয়নার দিকটি যেন যথেষ্ট পরিমাণে আলো থাকে। অন্ধকার কোণে আয়না থাকলে তা নেতিবাচক শক্তিকে আকর্ষণ করে।  এছাড়া আপনি ঘরের যেখানেই  আয়না লাগাবেন নিশ্চিত করুন যেনো সেটি পরিষ্কার ও দাগমুক্ত থাকে। বাস্তু মতে, আয়নায় দাগ বা অস্পষ্টতা বাড়ির সদস্যদের ওপর কুপ্রভাব ফেলে।সবসময় পরিষ্কার আয়নায় মুখ দেখা শুভ। বাথরুমের দরজার ঠিক সামনে আয়না রাখবেন না , এতে বাথরুমে নেতিবাচক শক্তি প্রবেশ করে। 

৬। সতর্ক থাকুন আয়নার আকারের বিষয়েও। গোলাকার বা ডিম্বাকৃতি বা যেকোনো অনিয়মিত আকারের আয়না ঘরে না বসানোই ভালো এতে সংসারে অশান্তি বাড়ে । তবে বাস্তু শাস্ত্র অনুসারে, আয়তাকার বা বর্গাকার আয়না শুভ হিসেবে বিবেচিত হয়। তবে আয়নার দৈর্ঘ্যর ক্ষেত্রে কোনো অসুবিধা নেই, যেকোনো মাপের আয়নাই লাগাতে পারেন।

৭। বসার ঘরে বাস্তু মেনে আয়না রাখলে পরিবারে সুখ- শান্তি বজায় থাকে। পরিবারের ছবির সামনে বা সুন্দর কোনো প্রাক্রিতিক দৃশ্যের ছবির সামনে আয়না রাখলে সেই বাড়িতে বসবাসকারী মানুষের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকে এবং সুখ বিরাজ করে।

৮। জানালা বা দরজার সামনে আয়না লাগাতে নেই। বাড়িতে প্রবেশের দরজার সামনেও আয়না রাখবেন না।

৯। বাচ্চাদের ঘরে পড়ার টেবিলের সামনে আয়না না রাখাই ভালো। আয়নার দিকে তাকিয়ে পড়লে পড়াশোনার ক্ষতি হয়। যদি আয়না লাগানো থাকে তবে কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন।

১০। বাস্তু মতে, দুটি আয়না কখনই একে অপরের মুখোমুখি রাখা উচিত নয় এতে পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি হতে পারে। 

More Articles

;