আমাজন-নেটফ্লিক্স থেকে রাতারাতি ৪০০ কোটির বরাত! অনুষ্কা শর্মা লক্ষ্মীলাভের রহস্যটা কী

ওটিটি  প্ল্যাটফর্ম গত কয়েক বছরে সিনেমার হালের পানি কেড়ে নিয়েছে। নানা ধরনের সিরিজ, সিনেমা, তথ্যচিত্রে সাজানো পসরায় দেশের বেড়া ভেঙে খদ্দের আসছে এই মঞ্চে। বিশেষত গত দুবছরে করোনা পরিস্থিতির জন্য সিনেমাহল গুলি বন্ধ থাকায় ওটিটির ব্যবসা বেড়েছে রমরমিয়ে। মধ্যবিত্ত, যারা বাড়িতে বসে কাটাতে বাধ্য হয়েছেন দিনরাত, তাদের কাছে স্মার্টফোনে, কম্পিউটার স্ক্রিনে বা স্মার্ট টিভিতে পাওয়া বিশ্বমানের বিনোদনের বৈচিত্র অত্যন্ত উপভোগ্য হয়েছে। ভারতের বাজারে প্রধান তিনটি ওটিটি এই মুহূর্তে ডিজনি হটস্টার, আমাজন প্রাইম ভিডিও ও নেটফ্লিক্স। এই তিনটি প্লাটফর্মকে পরস্পরের জাতশত্রু বলেই চেনেন সকলে। এই ওটিটির সাম্প্রতিকতম খবরে স্তম্ভিত অনেকেই।

অনুষ্কা শর্মা ও তাঁর ভাই কার্ণেশ শর্মার প্রযোজনা সংস্থা ‘ক্লিন স্লেট ফিল্মজ্‌’ এর আগে বেশ কয়েকটি হিট ছবি ও সিরিজ দিয়েছেন নেটফ্লিক্স এবং আমাজন প্রাইমে। প্রসঙ্গত নেটফ্লিক্সের ‘বুলুবুল’ এবং প্রাইমের ‘পাতাললোক’ অত্যন্ত জনপ্রিয়তা লাভ করে। চলতি ধারার বিনোদনের পাশাপাশি একটু অন্য রকম প্রোজেক্ট নির্বাচন করে এই হাউসটি। প্রবল রাজনৈতিক বোধসম্পন্ন সিরিয়াস গোছের কাজগুলি উপভোগ্যও কম হয় না। এর জন্য বহু সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাঁদের। তবে অডিও-ভিজুয়াল বিনোদনপ্রেমীদের জন্য অত্যন্ত সুখবর সম্প্রতি ক্লিন স্লেট হাউসকে প্রাইম এবং নেটফ্লিক্স যৌথভাবে ৪০০ কোটি টাকার বরাত দিয়েছে তাদের ওটিটি মাধ্যমে মুভি ও সিরিজ নির্মাণের জন্য। আপাত ভাবে জাতশত্রু এবং ভারতের প্রেক্ষিতে প্রধান প্রতিযোগী হিসেবে পরিচিত এই দুটি মাধ্যমকে একসঙ্গে এত টাকা লগ্নি দেখে তাজ্জব অনেকেই। 

অনুষ্কার ভাই, ক্লিন স্লেট ফিল্মজ্‌-এর কর্ণধার, কার্নেশ (৩৭) ব্লুমবার্গকে জানিয়েছেন এ পর্যন্ত আগামী ১৮ মাসের চুক্তি হয়েছে নেটফ্লিক্সের সঙ্গে। ঝুলন গোস্বামীর বায়োপিক চাকদা এক্সপ্রেস থেকে সেই চুক্তির প্রথম ছবি। নামভূমিকায় অভিনয় করছেন অনুষ্কা শর্মা। এ ছাড়াও সামনে এসেছে ‘মায়ি’ নামের একটি থ্রিলার সিরিজ এবং ড্রামা জঁরের ফিল্ম ‘কালা’-র নাম। চুক্তির আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতির আগে সম্পূর্ণ তালিকা ফাঁস করতে নারাজ কার্নেশ।

ভারত বিনোদনের একটি বিরাট বাজার। প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ কোটি টাকার লেনদেন চলে এই বাজারে। কিন্তু সেই বাজারে সমগ্রভাবে ‘ভারত’ ধরে কাজ করতে গিয়েই বিপদে পড়েছে নেটফ্লিক্স। গত হপ্তাতেই নেটফ্লিক্সের কো-ফাউন্ডার, প্রেসিডেন্ট এবং কো-সি ই ও রিড হেস্টিংস্‌ জানান ভারতে ব্যবসার অবস্থা মোটেই ভালো নয় তাঁদের। অবস্থান বোঝানোর তাগিদে ‘হতাশাজনক’ শব্দটিও ব্যবহার করেন তিনি। প্রসঙ্গত গত ডিসেম্বরেই সাবস্ক্রিপশন প্ল্যানে কাটছাঁট করতে বাধ্য হয়েছে সংস্থাটি। এই ছাড়ের  পরিমাণ কোথাও কোথাও ৬০% পর্যন্ত দাঁড়িয়েছে। যদিও সাবস্ক্রাইবারদের সংখ্যা সামনে আনতে নারাজ নেটফ্লিক্স, কিন্তু বাজারের হিসেব অনুযায়ী সংখ্যাটা ৪৩ লক্ষ থেকে ৪৫ লক্ষের মধ্যে। যেখানে ডিজনি হটস্টারের সাবস্ক্রাইবার ৩ কোটি ৬০ লক্ষ্যের কাছাকাছি এবং প্রাইমের ১ কোটি ৭০ লক্ষের বেশি, সেখানে নেটফ্লিক্সের অবস্থা খুব একটা যে সুবিধার নয় তা পরিষ্কার। কাজেই ১৯৯ টাকার মাসিক প্ল্যান এখন ১৪৯, এমনকী সর্বোচ্চ প্ল্যানটিও ৬৪৯-এর মধ্যে নামিয়ে আনা হয়েছে। এ অবস্থায় সাত দিনের ভিতর কী এমন ঘটল, যাতে উল্টে গেল পাশা? প্রশ্ন ওঠেই।

আরও পড়ুন-গায়ে জাতীয় দলের জার্সি, মনে চিকিৎসার মন্ত্র, বিশ্বের বিস্ময় আফগান শরণার্থী নাদিয়া নাদিম

ভারতের বিনোদনের যুগপৎ দুটি চরিত্র মূলধারার বিনোদনের ক্ষেত্রে সাফল্যের চাবিকাঠি হিসেবে দেখা গিয়েছে বারবার। একই সঙ্গে লোকাল ও গ্লোবাল বৈশিষ্ট্য। উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে আল্লু অর্জুনের ‘পুষ্পা’ ছবিটির কথা। এই চরিত্র সঠিকভাবে অর্জন করতে নেটফ্লিক্স যে ব্যর্থ হয়েছে তা সংস্থার সি এফ ও স্পেন্সার নিউম্যান স্বয়ং স্বীকার করে নিয়েছেন। এছাড়া বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ উঠে এসেছে। ২০১৬-তে ভারত চালু হওয়া সর্বপ্রথম ওটিটি হওয়া সত্ত্বেও কেন সেভাবে বাজার ধরতে সক্ষম হল না নেটফ্লিক্স? সমস্ত প্ল্যানের মূল্য কমিয়েও এ পর্যন্ত ভারতের সবথেকে খরচসাপেক্ষ ওটিটি নেটফ্লিক্সই, অবশ্যই এটি একটি বড় কারণ। হেস্টিংসের মতে ভারতে লোকে কেবল টিভি দেখে কম বেশি মাসিক তিন ডলার মূল্যের বিনিময়ে। এর মূল কারণ বিপুল পরিমাণে অ্যাড ধরতে সক্ষম চ্যানেলগুলি। এত সস্তায় এতগুলি চ্যানেল উপভোগ করা দর্শকদের মননে বিনোদনের জন্য ধার্য্য খরচের একরকম বিশেষ প্রত্যাশার জন্ম দেয়। তাও একটি বড় কারণ। অস্বীকার করার উপায় নেই।

তবু  ভেবে দেখার বিষয় ভারতের সাধারণ মানুষের গড় দৈনিক আয় কত। কোন বয়সের এবং কোন শ্রেণির কাছে স্মার্টফোন এবং ওটিটির উপভোক্তা হওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। তাদের রুচি কী ধরনের বিনোদন পছন্দ করে। ভারতের ক্ষেত্রে বিষয়টি এত বহুমাত্রিক যে তার কূলকিনারা করে উঠতে পারেনি বিজ্ঞাপনহীন নেটফ্লিক্স। তবে আরো সস্তায় অ্যাড-সহ একটি নয়া মডেলের মাধ্যমে কীভাবে আরো ব্যাপক সংখ্যক উপভোক্তাকে নিজেদার বলয়ে নিয়ে আসা যায়, সেই চেষ্টাই করছে নেটফ্লিক্স। মনে রাখতে হবে, মাসিক ১৫০টাকা মূল্য শুধুমাত্র বিনোদনের জন্য খরচ করাও ভারতের সাধারণ মানুষের কাছে খুব একটা সহজ ব্যাপার না।

আরও পডুন-রাজস্থানের এই অলৌকিক গ্রাম থেকে বেঁচে ফেরা কঠিন…

এছাড়া নেটফ্লিক্সের বিরুদ্ধে ওঠা কিছু অভিযোগও পথের কাঁটা। প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থার একজন সিনিয়র এক্সিকিউটিভ জানিয়েছিলেন, “সমস্ত সমস্যার মুখে টাকা ঢালার অভ্যাসটা নেটফ্লিক্সকে আরো ডুবিয়েছে। একে কীসের বাজার ধরতে চাইছে তার কোনও স্বচ্ছ ধারণা নেই। নইলে ৮৫ কোটি টাকা ‘সূর্যবংশী’র পেছনে কে ঢালে মশাই? বলিউড নিয়ে নেটফ্লিক্সের যত আগ্রহ এলাকাভিত্তিক বিনোদনে ওদের কোনওদিনই তা ছিল না। এখন এলাকাভিত্তিক বিনোদন নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে বটে, কিন্তু অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছে।” এও জানা যাচ্ছে, একটা সময় আরওআই অর্থাৎ রিটার্ন অন ইনভেস্টমেন্ট, লগ্নির প্রেক্ষিতে উঠে আসা লাভের পরিমাণ নিয়ে বিন্দুমাত্র চিন্তাভাবনা করত না সংস্থাটি। কন্টেন্ট, মার্কেটিং, পাবলিসিটিতে খরচ করার জন্য ছিল অফুরান বাজেট। কাজেই ভুলভাল লগ্নিতে বাজার বাড়েনি তেমন।

তবে এ বিষয়ে হেস্টিংস আশাবাদী। কারণ হিসেবে তিনি জানান ব্রাজিলেও একই রকম সমস্যার সম্মুখে নাকি পড়তে হয়েছিল তাঁদের; কিন্তু এখন বাজার চলছে সেখানে রমরমিয়ে। তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এমন তুলনা বাজারকে আরো ক্ষতিগ্রস্ত করবে। লাতিন আমেরিকার একটি বিশেষ দেশের বাজার আর ভারতের বাজার সম্পূর্ণ উল্টো মেরুর। এমনকী ভারতের বিভিন্ন রাজ্যগুলির মধ্যেও ছড়িয়েছিটিয়ে রয়েছে বৈচিত্র, বৈপরীত্য । যে আঞ্চলিকতাকে অনেকটাই প্রভাবিত করতে পেরেছে ডিজনি ও প্রাইম তাদের উপাদানের  দিয়ে। এ বিষয়ে আমাজনের একটা বাড়তি সুবিধে ছিল পরিচিতি। অনলাইন মার্কেটিং-এর সূত্রে এলাকাভিত্তিক জনরুচি সম্বন্ধে পরিষ্কার ধারণা ছিল তাদের। শুরুতে যদিও ডেলিভারির বাড়তি সুবিধে হিসাবেই শুরু হয়েছিল প্রাইম। পরে ওটিটি হিসেবে আসার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সেখানে থেকেছে বিভিন্ন রিজিওনাল এবং গ্লোবাল মুভি, সিরিজ ইত্যাদি। বর্তমানে ওটিটি প্রাইমের মাধ্যমে সাবস্ক্রাইব করলে সেইসব প্ল্যানে বিশেষ ছাড়ও দিচ্ছে আমাজন। প্রান্তিক অঞ্চলগুলিতেও পৌঁছে যাওয়া তাদের পরিচিতি আরো বাড়িয়ে তুলেছে। এমনকী মেট্রো শহরে প্রাইম ডেলিভারি দিয়ে থাকে একদিনের ভিতরেও। এবং প্রাইম মেম্বারদের জন্য এই ডেলিভারি সম্পূর্ণ ফ্রি। এইসব নানাবিধ কারণে প্রাইমের উপভোক্তা বেশি। হটস্টারের উপভোক্তা সবথেকে বেশি হওয়ার কারণ অন্য। সমস্ত টিভি সিরিয়াল, যা দেশ জুড়ে বিভিন্ন স্থানীয় ভাষায় বিভিন্ন কেবল চ্যানেলে পরিবেশিত হয়, তার সিংহভাগ হটস্টারে মেলে। বর্তমানে ডিজনি তাকে গ্লোবাল এক্সপোজার দিয়েছে। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ওটিটি যা ভারতে উপলব্ধ নয়, তাদেরও বিশেষ বিশেষ শো দেখার সুযোগ দেয় উপভোক্তাকে হটস্টার। এবং এ সবই নেটফ্লিক্সের তুলনায় সামান্য মূল্যে। একটু ভালো করে দেখলেই বোঝা যাবে প্রাইম এবং হটস্টার বিনোদনে লোকাল এবং গ্লোবালের অনুপাত বজায় রেখেছে সমান সমান। ঠিক এইখানেই মার খেয়েছে নেটফ্লিক্স। ভারতের সাধারণ মানুষ বিপুল জনপ্রিয় কোরিয়ান শোতে আগ্রহী হবে না কখনই। তা এলিট বৃত্তের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে—এটাই স্বাভাবিক।

আরও পড়ুন-কুচকাওয়াজ থেকে ‘ফ্লাইপাস্ট’, সাধারণতন্ত্র দিবস সম্পর্কিত এই অজানা তথ্যগুলি স্তম্ভিত করবে

তাহলে ক্লিন স্লেট ফিল্মজ্‌-এ এই বিরাট পরিমাণের লগ্নি কি নেটফ্লিক্সের অবিবেচনার ফসল? নাকি ‘বুলবুল’ এবং ‘পাতাললোক’-এর মতো দক্ষ পরিবেশনার সাহায্য নিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা? ঝুলন গোস্বামীর বায়োপিকের যেমন বিশ্বজনীন আবেদন রয়েছে, তেমনই অনুষ্কার ভাঙা ভাঙা বলা বাংলার পাখির চোখ যে বাংলাভাষী মানুষই—একথা বলার অপেক্ষা রাখে না। প্রশংসা হোক বা নিন্দার ঝড়, ছবি বাজার করবে দুইয়েই। কাজেই কী ভেবে নেটফ্লিক্সের এই লগ্নি তা সময়ই বলবে। এই লগ্নি নিয়ে মুখ খোলেনি আমাজন। বাজার ধরার জন্য উদগ্রীব নেটফ্লিক্স যখন প্ল্যানের মূল্য কমাচ্ছে ঠিক তার বিপরীতে নিজেদের প্ল্যানের মূল্য বাড়িয়ে দিয়েছে তারা। মাসিক ১২৯ টাকার প্ল্যান এখন ১৭৯ টাকায় দাঁড়িয়েছে। কোয়ার্টারলি প্ল্যানের মূল্যও ৩২৯ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৫৯ টাকা। এবং বার্ষিক ৯৯৯ টাকার প্ল্যান এখন ১৪৯৯ টাকা। ২০১৭-র পর এই প্রথমবার প্ল্যানের মূল্য বাড়াল অ্যামাজন। ২০১৬তে প্রাইমের গ্রাহকমূল্য ছিল ৪৯৯ টাকা। ২০১৭-তে তা বেড়ে হয় ৯৯৯ টাকা। তারপরে দীর্ঘ চার বছর মূল্য বাড়ায়নি তারা। কেন আচমকা এই মূল্যবৃদ্ধি? তা কি লগ্নির কারণেই? নাকি আসন্ন বিনোদনের মান ও জনপ্রিয়তা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী অ্যামাজন কর্তৃপক্ষ? উত্তর হয়তো মিলবে শিগ্‌গিরিই। এখন শুধুই অপেক্ষা।

তথ্যঋণ–

100010509524078, 2022. Amazon, Netflix tie up with Anushka Sharma’s company in USD 54 million deal [WWW Document]. dtNext.in.

Amazon, Netflix tie up with Anushka Sharma’s company for $54 - Digital India Web, n.d.

Amazon, Netflix Tie Up With Anushka Sharma’s Company In $54 Million Deal [WWW Document], n.d. . NDTV.com.

Amazon Prime Membership Price Increases As Netflix Subscription Plans In India Get A Revision [WWW Document], n.d. . Moneycontrol.

Anushka Sharma’s production house strikes USD 54 million deal with Amazon and Netflix: Report | Hindi Movie News - Times of India [WWW Document]

Anushka Sharma’s production house strikes USD 54 million deal with Amazon and Netflix: Report - Times of India [WWW Document], n.d. . The Times of India.

Laghate, G., 2022. Netflix’s lack of success in India ‘frustrating’, cofounder Reed Hastings says. The Economic Times.

More Articles

;