মোষের দাম ২৪ কোটি! চেহারার মতোই রাজকীয় ভীমের গল্প

পুষ্কর মেলার নানা পরিচয়। কোথাও পুষ্কর উট মেলা, আবার কোথাও কার্তিক মেলা নামে স্থানীয় লোকে চেনে এই অনুষ্ঠানটিকে। মূলত কার্তিক মাসের শেষে কার্তিক পূর্ণিমায় হয় বলে মেলার এমন নাম। এই মেলায় দেড় থেকে দু লক্ষ মানুষ জড়ো হন। সঙ্গে আনেন তাঁদের নানান পশরা। বিভিন্ন হাতের কাজ তথা কুটির শিল্প থেকে বিক্রি হয় গবাদি পশুও। গরু-মোষ, ঘোড়া এবং উট বেচাকেনার বাজার হিসেবে এটি ভারতে বৃহত্তম। এখানে আদান প্রদান হয় বিশ্বজোড়া সংস্কৃতির। বর্তমানে এই মেলা গোটা বিশ্বে কাছে সুপরিচিত। আরাবল্লী পর্বতের পশ্চিমে অবস্থিত পুষ্কর আজমের থেকে কিমি দশেক। এই মেলাতেই এবার ঘটে গেল এক আশ্চর্য ঘটনা।

গবাদি পশু কেনাবেচার বিষয়টি হাটবাজারে বা মেলায় খুব একটা নতুন নয়। পুষ্করেও তাই হয়ে থাকে। তবে এবার ‘ভীম’ এসে পৌঁছায় সেই মেলায়। পেল্লায় চেহারার এই মোষটির ওজন দেড় টন। সেই চেহারা  দেখে মেলার মানুষজন রীতিমতো থ। শুধু কি তাই? এর দাম শুনলে চোখ কপালে উঠবে। মোষটির মালিক অরবিন্দ জাঙ্গিদ জানান, মোষটির দাম ২৪ কোটি টাকা। যদিও মোষটিকে তিনি প্রদর্শনের জন্যই নিয়ে এসেছিলেন। বিক্রির বিন্দুমাত্র ইচ্ছাও তাঁর ছিল না। সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন বিক্রি করবেন না এই অমূল্য সম্পত্তি। এই মোষের গল্প শুনে নাকি এক আফগান শেখ যোধপুরে আসেন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে। তিনিই ২৪ কোটি টাকা দিয়ে কিনতে চেয়েছিলেন ভীমকে। কিন্তু অরবিন্দ নারাজ ওই টাকাতেও। শুধু ওই টাকাতে কেন, যে কোনো পরিমাণ টাকার বিনিময়েই মোষ বেচবেন না, পুষ্করের মেলায় তিনি ভীমকে নিয়ে এসেছেন সবাইকে শুধুমাত্র মুরাহ্‌ জাতের মোষ কী ভাবে আজও সংরক্ষণ করা হয়–তাই দেখাতে।

‘মুরাহ্‌’ আসলে মোষের একটি দেশি জাত। মূলত দুধ উৎপাদনের ক্ষমতার জন্য এই মোষ পালন করা হয়ে থাকে। হরিয়ানা এবং পাঞ্জাবে, মূলত ভীওয়ানি, হিসর, রোতক, জিন্দ, ঝাঞ্ঝর, ফতেহাবাদ, গুরগাঁও এবং দিল্লি অঞ্চলে এই ধরনের মোষ পালিত হয়। শুধু তাই নয়, মুরাহ্‌র খ্যাতি রয়েছে বিদেশ পর্যন্ত। ইতালি, বুলগেরিয়া এবং ইজিপ্টে এই মোষের সাহায্যে দুধ উৎপাদন রীতিমতো বাড়ানো গিয়েছে। পাঞ্জাবের লক্ষ্মী ডেয়ারি ফার্মের একটি মুরাহ্‌ ২০১৬ সালের জাতীয় পশুপালন প্রতিযোগিতায় ২৬.৩৩৫ কেজি দুধ দিয়ে রেকর্ড গড়েছিল। ব্রাজিলের মতো দেশগুলিতে এই মোষের চাষ হয় দুধ এবং মাংস–দুইয়ের জন্যই। স্বকাভাবিক ভাবেই মুরাহ্‌র দাম অত্যন্ত বেশি। ভারতে মোষের যত প্রজাতি পাওয়া যায়, মুরাহ্‌ই তার মধ্যে সবথেকে বেশি দুধ উৎপাদনের ক্ষমতা রাখে। কুচকুচে কালো এই প্রজাতির মুখে বা পায়ে সাদা ছিটছিট দাগ থাকলেও থাকতে পারে। তবে মাদী মুরাহ্‌র চোখ বেশ বড়, তুলনায় পুরুষের চোখ একটু ছোট। তবে সেই চোখও সম্পূর্ণ কালো। মাদীর গলা লম্বা এবং সরু, তুলনায় ঘাড়ে গর্দানে চেহারা পুরুষগুলির। ছোট ছোট কানগুলি অত্যন্ত সতর্ক। শিংও ছোটই, ভিতরদিকে মোড়া। একটি মাদী মুরাহ্‌ এক মরশুমে সর্বোচ্চ ২২০০ লিটার পর্যন্ত দুধ দেয়।

যদিও ‘ভীম’ পুরুষ মুরাহ্‌। এ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রদর্শনীতে নানা পুরস্কার পেয়েছে সে। অরবিন্দ দাবি করেছেন ২০১৮ এবং ২০১৯-এও ভীমকে পুষ্করে এনেছিলেন তিনি। এছাড়াও বালোত্রা, নাগপুর এবং দেরাদুনের মেলায় ভীমকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।  সব জায়গাতেই বহু পুরস্কার সংগ্রহ করে সে। অরবিন্দ ইশুক ভীমের বীর্যও বিক্রি করেন নান পশুপালকদের। এর দাম অত্যন্ত বেশি। এই বীর্যের নিষেকে যে বাছুরগুলির জন্ম হয়, তাদের এক একটির ওজন প্রায় ৪০ থেকে ৫০ কেজি। বড় হয়ে এগুলি ২০ থেকে ৩০ লিটার পর্যন্ত দুধ দেয়। তাই .২৫ এম এল বীর্যের দাম পড়ে ৫০০টাকা। এই পরিমাণ বীর্য একটি পেনের রিফিলের মধ্যে এঁটে যাবে। কাজেই কী পরিমাণ মূল্যে বিক্রি হয় এ জিনিস, তার একটা আনফাজ করা যায়। ভীমের মালিক এ ধরনের ১০০০০ রিহিল বিক্রি করেন প্রতি বছর। এক একবারে ৪ থেকে ৫ এমএল বীর্য নিষ্কাশিত হয়।

ভীমের আকৃতি বিশাল। লম্বায় মোষটি ১৪ ফুট এবং উচ্চতায় ৬ ফুট। রাজকীয় চেহারার এই মুরাহ্‌র খাবারের পরিমাণও রাজকীয়। রোজ কিলোখানেক ঘি খাওয়ানো হয় তাকে। এছাড়াও রোজ পঁচিশ লিটার দুধ খায় সে। সঙ্গে থাকে কিলো খানেক আমন্ড ও কাজু। এই বিরাট পরিমাণ খাওয়ায় চেহাড়া খোলে ভীমের। বর্তমানে তার ওজন ১৫০০ কেজি। ২০১৯ সাল নাগাদ যখন পুষ্করের মেলায় আনা হয়েছিল, তখন তার ওজন ছিল ১৩০০ কেজি। বছর দুয়েক দু কুইন্টাল ওজন বেড়েছে তার। ২০১৯ সাল নাগাদ ভীমের দাম ছিল ২১ কোটি টাকা। বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪ কোটিতে। অর্থাৎ বছর দুয়েকের মধ্যে প্রায় তিন কোটি টাকা দাম বেড়েছে তার।

তথ্যঋণ—

All details about Murrah Buffalo [WWW Document], n.d. bharathidairyfarm.com

Meet “Bheem”, a Buffalo worth Rs. 24 crores; You Will be Shocked to Know the Value of Its Semen [WWW Document],

Murrah buffalo, 2022. . Wikipedia.

Nov 25, A./ U., 2021, Ist, 06:00, n.d. Owner refuses to sell buffalo worth Rs 24 cr [WWW Document]. Bangalore Mirror.

Pushkar Mela: Rs 24 cr worth buffalo’s semen in high demand [WWW Document], 2021. . The Siasat Daily.

More Articles

;