জয় শ্রীরাম: ছিল নিরীহ স্লোগান, গেরুয়া 'অস্ত্র' হয়ে উঠল যেভাবে...

Jai Shri Ram: এই রাজ্যে রামনবমীর মিছিল ছাড়া এই স্লোগান খুব যে শোনা যেত তা নয়। এটাকে বিখ্যাত করার পিছনে বড় ভূমিকা রয়েছে তৃণমূলের। আরও স্পষ্ট করে বলতে হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

মরা মরা মরা বলতে থাকলে রাম রাম হয়ে যায়। রাম রাম রাম বলতে থাকলে মরা মরা হয়ে যায়। দুটোই সত্যি। আসলটা প্রেক্ষিত। কী বলতে চাইছি, কেন বলতে চাইছি, কীভাবে বলতে চাইছি। তাই ‘জয় শ্রীরাম’ মানে যেমন রামের প্রতি ভক্তি, পুরুষোত্তমের জন্য জয়ধ্বনি, তেমনই সুর বদলালেই হুঙ্কার, হুঁশিয়ারি, বদলা নেওয়ার স্লোগান। কখনও কখনও শত্রুদমনের উল্লাস। আগে উদাহরণ, পরে ইতিহাস। ঠিক ইতিহাস নয়, পর্যায়ক্রম। যেভাবে নিরামিষ ধর্মীয় ধ্বনি আমিষ স্লোগান হয়ে উঠল। মন্দিরে পুজোর ভাষা, রাজনৈতিক ময়দানের হাতিয়ার হয়ে ওঠার ঘটনাক্রম। সবচেয়ে কাছের উদাহরণ গত ৩০ ডিসেম্বরের। উপলক্ষ্য ছিল, বন্দে ভারত এক্সপ্রেস-সহ নানা প্রকল্পের উদ্বোধন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আসতে না পারলেও ভার্চুয়ালি উপস্থিত হাওড়া স্টেশনে। গোটাটাই সরকারি কর্মসূচি। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছতে না পৌঁছতেই উঠল ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান। ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন মমতা। রাগ প্রকাশও করেন। কথায় নয়, কাজে। রেলমন্ত্রী থেকে রাজ্যপালের অনেক অনুরোধেও মঞ্চে না উঠেই অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ট্রেনকে সবুজ পতাকা দেখান, বক্তৃতাও দেন। মমতাকে দেখে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিয়ে ‘আক্রমণ’ এমন অনেক হয়েছে। ওড়িশার পুরী থেকে রাজস্থানের পুষ্কর কিংবা…

Continue Reading

Support quality writing

Encourge writers

Access on any device

Rental includes 30 days of reading from the date of purchase

More Articles