রাস্তা কারুর বাবার নয়

By: BAULARKA

September 10, 2021

Share

চিত্রঋণ : inscript.me

এক ক্লাস ভর্তি ছেলেপিলে, দুপুর ১:৪০, সবে মাত্র টিফিন টা শেষ হয়েছে। সদ্য আজ এসএসসি দিয়ে ( অনেক দিন আগের ঘটনা,এসএসসি শুনে ঘাবড়ে যাবেন না ) নতুন বাংলার স্যার ইতিহাসের ক্লাস নিতে এসেছেন,হাতে বীর বিক্রমে ধরা অ্যাটেনডেন্স বুক,চক ও বেত। বেত বোধহয় উনি নিতে চাননি ওনাকে জোর করে ধরিয়ে দেওয়া হয়ছে ( পুরোনো স্যার-রা তো অবগত টিফিন পরবর্তী অসুস্থতায়)।কথা প্রসঙ্গে বলে রাখি SSC পরীক্ষা গুলো তখন হতো,এখনকার মত নয়। যাই হোক তিনি আবার ইতিহাস পড়াবেন আজ; কারণ বয়স্ক বিশুবাবু আজ আসেননি।
দেয়ালে রং করা ব্ল্যাক বোর্ড, ডানদিকের ওপরে ক্লাস মনিটর বড় বড় করে তারিখ লিখে দিয়েছে,আর আছে কিছু নাম যেগুলো দস্যিপনা করেছে ।
স্যার আরম্ভ করলেন -“G.T.Road কে বানিয়েছিল জানো?”
উত্তর এলো, “শের শাহ সুরি “

এই পর্যন্ত বাঙালি বেশ পরিচিত,আমি তো আরো বেশি কারণ আমার মামার বাড়ি যেতে হলে গঙ্গা টপকে, G. T.Road কে ডান দিক থেকে আর বাম দিক থেকে দেখে ওটাকেও টপকে যেতে হয়।
দাদুর হাত ধরে রাস্তা পেরোতে পেরোতে অনেক আগেই সেই গল্প শুনেছি , কিন্তু…..
ওই সেই কিন্তু……
কিছু অতিরিক্ত ইতিহাসের পুনরুদ্ধার, কিছু অজানা কথা আমরা জানতে পারিনা, সময়ের অভাবে বা জানার সদিচ্ছার স্বল্পতায়।

বলাহয় মানে সবাই জানে যে ‘গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড ‘ বানিয়ে ছিলেন “শের শাহ সুরি “।কিন্তু এর ইতিহাসটা-র মানে বেশ খানিক টা পুরোনো, যেমন ধরা যাক ” চন্দ্র গুপ্ত মৌর্য “…..না না…. তারও আগে,
হরপ্পা মহেঞ্জোদারো সভ্যতায় যে যে ধরনের মোহর বা বিনিময় প্রথায় যে যে জিনিস ব্যাবহৃত হতো সেই গুলো গোটা রাস্তা মানে বর্তমান ‘গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড’- এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় সেই সব জিনিসের অস্তিত্ব মেলে।
ভারতবর্ষের বিখ্যাত মহাকাব্য-তেও এমন একটি রাস্তার অস্তিত্ব পাওয়া যায় যেটার সাথে বর্তমান ‘গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড’- এর অনেক মিল আছে।

পুরাতন ভারত , বাংলাদেশ, চীন, আফগানিস্থান ও মধ্যপ্রাচ্য-এর মধ্যে যোগাযোগ ছিল। কুশল বিনিময়, বস্তু আদান প্রদান ও শিল্প আদানপ্রদানের খুব গুরুত্ব পূর্ণ অংশ।
বিভিন্ন সময় কাল এর তত্ত্ব অনুযায়ী এই রাস্তার অবস্থান লক্ষ করা যায় বাংলাদেশের চট্টগ্রাম থেকে ভারত এর তক্ষশীলা, পাটুলিপুত্র, হস্তিনাপুর হয়ে বর্তমান পাকিস্থানের মধ্য দিয়ে মধ্য প্রাচ্য পর্যন্ত অবস্থান করে। এর পুরোটাই ছিল কাঁচা পায়ে হাঁটা পথ, মূলত ঘোড়া আমদানি, রেশম আমদানির জন্য ব্যাবহার হতো এই পথ। প্রায় ৩৫০০ বছর আগে, পরবর্তী কালে এই রাস্তার মাহাত্ম্য দেখে মৌর্য বংশের রাজা প্রতাপশালী “চন্দ্রগুপ্ত মৌর্য,প্রথম এই রাস্তার প্রায় ২০০০ কিলোমিটার পাথর সহকারে পাকা করেন।সেই সময় এই রাস্তার নাম ছিল, “উত্তরাপথ “
ভাবুন…. একবার ভাবুন আপনারা যে রাস্তায়, ৩ নম্বর বাস এ চেপে অফিস যান সেই রাস্তা প্রায় ৩০০০ বছরের পুরোনো।

যাইহোক এর পর পরবর্তী কালের বিখ্যাত সম্রাট এই রাস্তার উন্নতি তে যোগদান করেন, কারণ তিনি বুঝতেন যোগাযোগই একটি সাম্রাজ্যের উন্নতির একমাত্র পথ হতে পারে।
তিনি রাস্তার দুই ধারে গাছ বসানো আরম্ভ করেন ও বেশ কিছু দূর অন্তর অন্তর পানীয় জলের অভাব দূর করতে কুয়ো বা ইঁদারা স্থাপন করেন; পান্থনিবাস বা সরাইখানাও তৈরি করেন।ইসস্ তখন যদি গুগল ম্যাপ টা থাকতো, স্যাটেলাইট ভিউ তে গিয়ে দেখা যেত কোথায় কি মেনু (ক্ষমা করবেন দুটো লকডাউন,মোবাইল ছাড়া অন্য কিছু ভাবতে জাস্ট ভুলিয়ে দিয়েছে, আমি তো কফি কোথায় খাবো সেটাও প্ল্যান করে নিয়েছিলাম )

-“বড্ডো ফাজলামি হচ্ছে তোদের পিটুনি না দিলে আমার শান্তি হবে না রে।এই..লাস্ট বেঞ্চের ৩ নম্বর উঠে দাঁড়া,উঠে দাঁড়া বলছি …
বল কোন রাজার মূর্তিতে মুখের অস্তিত্ব পাওয়া যায় না?”
-“বল বল?”
-“বুঝেছি হাতটা পাত” ( এই ব্যাপার টা বর্তমানে ঘটলে শিশু নির্যাতনের দায়ে পরের দিন জেল অবধারিত)
_”স্যার সম্রাট ‘ অশোক ‘ ।”
-“একদম ঠিক,সম্রাট অশোক। এতগুলো কাজ করেন তিনি, এই ‘গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড’ বা তৎকালীন ” উত্তরাপথ “এর উন্নতির জন্য।”
এরপর থেকে যারা যারা ভারতে এসেছে এই রাস্তার গুরুত্ব বুঝে তাকে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী আপডেট ও আপগ্রেড করেছেন। তার মধ্যে ‘শের শাহ সুরি’ ও আছেন।
কিন্তু এত যে পড়ানো হলো সমস্যা কি বলতো,এইগুলো যদি কেউ পরীক্ষার খাতায় লিখে আসে সে পাবে গোল্লা।যদি কেউ বই এর লেখা কপি পেস্ট করে আসে, মানে ‘শের শাহ সুরি’ লিখে আসে,তাহলে সে পুরো নম্বর পাবে। তাই যা জেনেছো সেটা ভুলে যাও,আর শেষের উত্তর টা লিখে এসো দয়া করে।

শুধু এই বাংলার স্যার নন এইরম হাজার হাজার ইতিহাস-প্রেমী মানুষজন তাদের অনেক অনেক তথ্য, পড়াশোনা, রিসার্চ আমাদের গল্পের মতো বলে গেছেন আর আমরা শুনে গেছি, কোনোদিন লিখতে পারিনি,কারন নম্বর পাবোনা এই ভয়ে।
তাই ৩০০০ বছরের থেকেও বেশি সময় ধরে হেঁটে চলা পথ গুলো এভাবেই, মনে রাখে সময়ের সদুত্তর।কোনদিন প্রশ্ন করতে শিখতে হবে, জানতে হবে, উত্তর খুঁজতে।

তথ্য : https://en.wikipedia.org/wiki/Grand_Trunk_Road
https://en.wikipedia.org/wiki/Sher_Shah_Suri
https://www.dangerousroads.org/asia/india/119-grand-trunk-road-india.html#:~:text=The%20journey%20is%20an%20unforgettable,Bengal%20and%20Chittagong%20in%20Bangladesh.&text=Beyond%20this%20mountain%20pass%2C%20the,crosses%20into%20India%20at%20Wahgha.

More Articles

error: Content is protected !!